প্রথমবার্তা প্রতিবেদক: গুজব ও গণপিটুনি ঠেকাতে গাজীপুরের কালীগঞ্জ থানা পুলিশের উদ্যোগে নেওয়া হয়েছে নানা কর্মসূচি।

 

 

 

 

 

গুজব ও গণপিটুনি প্রতিরোধে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে লিফলেট বিতরণ, মাইকিং এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সাথে মতবিনিময় করছে থানা পুলিশ ।

 

 

 

 

 

এরই ধারাবাহিকতায় সোমবার (২৯ জুলাই) সকালে উপজেলা ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ মসলিন কটন মিলস্ (এমসিএম) উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সাথে মতবিনিময় করেন কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আবুবকর মিয়া।

 

 

 

 

এ সময় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তাপস চন্দ্র দাস, সহকারী প্রধান শিক্ষক বিল্লাল হোসেন, সাংবাদিক আব্দুর রহমান আরমান, বিল্লাল হোসেনসহ বিদ্যালয়ের অন্যান্য শিক্ষক-কর্মচারী উপস্থিত ছিলেন।

 

 

 

 

এ ছাড়াও গত কয়েক দিনে উপজেলার সেন্ট মেরিস স্কুল এন্ড কলেজ, বেগম রাবেয়া আহমেদ, সেন্ট নিকোলাস উচ্চ বিদ্যালয়, কালীগঞ্জ শ্রমিক কলেজ, জামালপুর কলেজ, আজমতপুর কলেজসহ প্রায় সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সাথে মতবিনিময় করেন থানা পুলিশ।

 

 

 

 

 

 

এর আগে কালীগঞ্জ থানা পুলিশের পক্ষ থেকে গুজবের বিরুদ্ধে রাস্তায় রাস্তায় এবং স্থানীয় বাজারেগুলোতে প্রচার অভিযান হিসেবে মাইকিং ও লিফলেট বিতরণ করা হয়।

 

 

ওসি আবুবকর মিয়া শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের উদ্দেশে বলেন, পদ্মা সেতু নির্মাণে মানুষের মাথা লাগবে, এ ধরনের গুজব ছড়িয়ে জনসাধারণকে বিভ্রান্ত করছে এক শ্রেণির মানুষ। পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে তারা।

 

 

 

 

ছেলেধরা সন্দেহে অনেকে গণপিটুনির শিকার হচ্ছেন। অনেকেই আইন নিজের হাতে তুলে নিচ্ছেন। ছেলেধরা গুজবে কেউ কান দিবেন না। কারো আচরণে ছেলেধরা হিসেবে সন্দেহ হলে বিষয়টি তাৎক্ষণিকভাবে পুলিশকে অবহিত করুন।