প্রথমবার্তা প্রতিবেদক: এর আগের দফায় ২০১৪ সালে ইন্টারন্যাশনাল ফিন্যান্স করপোরেশন (আইএফসি) থেকে ৪ কোটি ৬৫ লাখ ৬০ হাজার শেয়ারে বিনিয়োগ নিয়েছিলো সিটি ব্যাংক ‍লিমিটেড।

 

 

 

 

বর্তমানে অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার দৌড়ে আবারও আইএফসি থেকে বিদেশী বিনিয়োগ নিতে চাইছে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত বেসরকারি এই ব্যাংকটি।

 

 

 

 

সম্প্রতি রাজধানীর ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে ব্যাংকটির অর্ধবার্ষিক আর্থিক প্রতিবেদন প্রকাশ অনুষ্ঠানে সিটি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মাসরুর আরেফিন জানান, ব্যাংকটি নতুন বিদেশী বিনিয়োগকারী খুঁজছে।

 

 

 

 

 

মাসরুর আরেফিন বলেন, আমরা ব্যাংকটিকে আরও শক্তিশালী করার জন্য কয়েকটি জায়গায় অনেক জোর দিচ্ছি। পরিবর্তন আনছি আমাদের ব্যবসার ধরণে।

 

 

 

 

গুরুত্ব দেওয়া বিভাগগুলোর মধ্যে অন্যতম হলে নারীদের জন্য বিশেষায়িত ব্যাংকিং, এজেন্ট ব্যাংকিং, ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোগে (এসএমই) অর্থায়ন,রিটেইল ব্যাংকিং, তথ্যপ্রযুক্তির সর্বোচ্চ ব্যবহার এবং মানবসম্পদ উন্নয়ন।

 

 

 

 

 

তিনি বলেন, বর্তমানে আন্তর্জাতিক সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল ফিন্যান্স করপোরেশনের (আইএফসি) আমাদের সাথে আছে।

 

 

 

আমরা ব্যাংকটিকে আরও শক্তিশালী করার জন্য আরও নতুন বিদেশী বিনিয়োগ খুজতেছি। আশরা করছি বিদেশী বিনিয়োগ পেলে ব্যাংককে আরও নতুন উচ্চতায় নিতে পারবো।

 

 

 

 

আমরা আমাদের গ্রাহক সংখ্যা ১ কোটিতে নিতে চাই এই আশাবাদ ব্যক্ত করে তিনি আরাও বলেন, তবে এটি সচারচর ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে নয়। এটি করতে চাই আধুনিক ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে ।

 

 

 

এর জন্য মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিসেসের (এমএফএস) ও এজেন্ট ব্যাংকিং-এ জোর দেওয়া জরুরি বলেও জানান তিনি।

 

 

 

 

প্রসঙ্গত, সিটি ব্যাংকের প্রতিটি শেয়ারের অভিহিত মূল্য ১০ টাকার সঙ্গে ১৮ টাকা ৩০ পয়সা প্রিমিয়াম বা অধিমূল্য যোগ করে দাম ধরা হয়েছিলো ২৮ টাকা ৩০ পয়সা।

 

 

 

 

 

বছরের প্রথম দুই প্রান্তিকে ব্যাংকটির নিট মুনাফা হয়েছে ১৮৪ কোটি ৬০ লাখ টাকা, যা আগের বছর একই সময়ে ১৩৯ কোটি টাকা। আগের বছরের প্রথমার্ধের তুলনায় চলতি বছর প্রথমার্থে ব্যাংকটির ৪৫ কোটি ৬০ লা টাকা নিট মুনাফা বেড়েছে। প্রবৃদ্ধির হার ৩২ দশমিক ৮ শতাংশ।