প্রথমবার্তা প্রতিবেদক:   গত ৭২ ঘণ্টায় মহাসড়কে ব্যাপক যানজটের কবলে পড়েছেন ঘরমুখী যাত্রীরা। ৫ ঘণ্টার পথ ২০/২২ ঘণ্টা পথে কাটিয়ে গন্তব্যে পৌঁছাচ্ছেন তারা। যেসব গাড়ি এখনও রাজধানী ছেড়ে যায়নি সেগুলো কখন ছাড়বে তা নিয়েও রয়েছে অনিশ্চয়তা।

 

 

 

 

শাহ ফতেহ আলী পরিবহনের বগুড়াগামী সকাল ৬টার বাস কল্যাণপুর বাস কাউন্টার ছেড়ে যাবে ১৪ ঘণ্টা পর রাত ১০ টায়। শনিবার (১০ আগস্ট) সকালে শাহ ফতেহ আলী পরিবহন কর্তৃপক্ষ এমন ঘোষণা দিয়েছে।

 

 

 

 

 

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, শুধু শাহ ফতেহ আলী পরিবহন নয়; হানিফ, এসআর, শ্যামলীসহ উত্তরবঙ্গগামী সব পরিবহনই শিডিউল সময়ের চেয়ে ৮-১০ ঘণ্টা পিছিয়ে দিচ্ছে শনিবারের সব বাসের যাত্রা।

 

 

 

 

 

হাসিমুখে পরিবার-পরিজন নিয়ে বাস টার্মিনালে আসা ঘরমুখী যাত্রীরা কাউন্টারে এসেই বিষাদগ্রস্ত হয়ে পড়ছেন। সঙ্গে থাকা শিশু ও ভারী গাট্টি-বোচকা নিয়ে বিপাকেও পড়েছেন তারা। অসহায় মুখে গাদাগাদি করে কেউ কেউ কাউন্টারে বসে পড়েছেন। আবার কেউ কেউ বাসায় ফিরে যাচ্ছেন।

 

 

 

 

বগুড়াগামী শাহ ফতেহ আলী পরিবহনের সকাল সাড়ের ৬টার বাস কখন ছাড়বে জানতে চাইলে পরিবহনটির কর্মকর্তা জামিল বলেন, যারা সকাল সাড়ে ছয়টার যাত্রী তাদের সন্ধ্যার পর যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে। যাত্রীরা আমাদের ফোন করে তিন ঘণ্টা পর পর বাসের অবস্থান জানতে পারবেন।