প্রথমবার্তা প্রতিবেদক:  মহান জাতীয় সংসদে বিরোধী দলীয় নেতা হিসেবে রওশন এরশাদকেই চূড়ান্ত মনোনয়ন দিয়েছে জাতীয় পার্টির সংসদীয় বোর্ড। সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর কার্যালয়েও দলের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছে।

 

 

 

 

বিরোধী দলীয় নেতার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হলেও সংসদে জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকে বিরোধী দলীয় উপনেতা কে হবেন, সে বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। স্পিকারের কার্যালয় থেকে বিরোধী দলীয় নেতার স্বীকৃতি পাওয়ার পর রওশন এরশাদ নিজেই উপনেতা ঠিক করবেন বলে সিদ্ধান্ত হয়েছে পার্লামেন্টারি বোর্ডের মিটিংয়ে।জাতীয় পার্টির মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙ্গাঁ সাংবাদিকদের এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

 

 

 

 

 

রাঙ্গাঁ বলেন, সংসদীয় বোর্ডের ২৫ সদস্যের মধ্যে ২৪ জনই রওশন এরশাদকে বিরোধী দলীয় নেতা মেনে সংশ্লিষ্ট নথিতে সই করেছেন। একজন সদস্য দেশের বাইরে থাকায় নথিতে সই করতে পারেননি। তবে রওশন এরশাদকে বিরোধী দলীয় হিসেবে তিনিও মেনে নিয়েছেন। সে হিসেবে তিনি সর্বসম্মতিক্রমেই বিরোধী দলীয় নেতা নির্বাচিত হয়েছেন।

 

 

 

 

জাপা মহাসচিব বলেন, দলের মধ্যে এ নিয়ে আর কোনো দ্বিধা নেই। আমরা এ বিষয়ে স্পিকারের দফতরে চিঠি দিয়েছি। এখন তার আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতিটুকুই বাকি থাকল।

 

 

 

 

বিরোধী দলীয় উপনেতা নির্বাচন বিষয়ে রাঙ্গাঁ বলেন, সংসদীয় বোর্ডের মিটিংয়ে উপনেতার বিষয়টি চূড়ান্ত করা যায়নি। স্পিকার বিরোধী দলীয় নেতাকে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকৃতি দিলে তিনিই উপনেতার বিষয়টি চূড়ান্ত করবেন।

 

 

 

 

তবে জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, জাপা চেয়ারম্যান জি এম কাদেরই বিরোধী দলীয় উপনেতা হিসেবে থাকবেন।

 

 

 

 

এদিকে, এর আগে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীকে চিঠি দিয়েছিলেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জি এম কাদের। ওই চিঠিতে নিজেকে বিরোধী দলীয় নেতা করার কথা জানিয়েছিলেন তিনি। তবে সংসদীয় বোর্ডের সভার পর জিএম কাদের ফের স্পিকারকে চিঠি দিয়ে জানিয়েছেন, তার আগের চিঠি যেন আমলে নেওয়া না হয়। রওশন এরশাদই বিরোধী দলীয় নেতা হবেন।