প্রথমবার্তা প্রতিবেদক: শাশুড়ি-বউমার সম্পর্ক কখনও মধুর, কখনও হয় কটু। দুজনের সম্পর্ক ভাল হলেও তা বিশ্বাস করতে চায় না কেউ। কিন্তু প্রচলিত এই ধারণাকে মিথ্যা প্রমাণিত করলেন ভারতের মহারাষ্ট্রের চার গৃহবধূ।

 

 

 

মহারাষ্ট্রের বাসিন্দা ওই চার গৃহবধূর শাশুড়ি অসুস্থ ছিলেন। অশীতিপর বৃদ্ধা দীর্ঘ রোগভোগের পর মা’রা যান সোমবার। মাতৃহারা চার ছেলের যেন মাথায় আকাশ ভেঙে পড়েছে।

 

 

 

 

শেষযাত্রার তোড়জোড় করারও ক্ষমতা নেই তাদের। তখন চোখের জল মুছতে মুছতে এগিয়ে আসেন চার গৃহবধূ। তারাই মৃ’ত শাশুড়ির শেষকৃত্যের ব্যবস্থা করতে শুরু করেন। নিয়ে আসা হয় খাট। ফুল, মালায় সাজিয়ে তোলা হয় বৃদ্ধার ম’রদেহ।

 

 

 

 

পাড়া-প্রতিবেশীদের সাহায্যে ওই চার গৃহবধূর শাশুড়ির মরদেহ তোলা হয় খাটে। কিন্তু কাঁধে করে ওই বৃদ্ধার মরদেহ শ্মশানে নিয়ে যাবেন কে? ছেলেরা যে শোকে মূহ্যমান। মায়ের লা’শ জড়িয়ে ধরে প্রাণপণে কেঁদে চলেছেন তারা।

 

 

 

 

তবে গৃহবধূরা বলেন, তারাই শ্মশানে কাঁধে করে নিয়ে যাবেন শাশুড়িকে। শুনে হতবাক প্রায় সবাই। শোকের মাঝে যা শুনেছেন তা সত্যি কি না, তা-ও বুঝতে পারেননি মাতৃহারা ছেলেরা।

 

 

 

 

 

তবে গৃহবধূদের সিদ্ধান্তে কেউই বাধা দেননি। এরপর কাঁধে খাট নিয়ে শ্মশানের পথে এগিয়ে চললেন চার গৃহবধূ। এই বিরল দৃশ্য নজর কেড়েছে প্রায় সবার। ছবিটি ইন্টারনেট ভাইরাল হয়েছে।