6 / 100 SEO Score

প্রথমবার্তা প্রতিবেদক:  কাজে যাওয়ার সময় ঈশ্বরদী রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকা (ইপিজেড) বিভিন্ন কম্পানির অন্তত ৩০ নারী শ্রমিক গুরুতর আহত হয়েছেন। আজ (শনিবার) সকালে পাবনা ঈশ্বরদীর দাশুড়িয়া সুগার মিল এলাকাস্থ (পাবনা-ঈশ্বরদী) মহাসড়কের ডিগ্রি পাড়া এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

 

 

 

 

আহতরা হলেন- পাবনার আটঘরিয়া উপজেলার আছমা (২৭), স্বপ্না (২৫), সোহাগী (১৮),  শারমিন (২৩), রুমা (২৫), লাইলী (৩০), দিলরুবা (২২), লতিফা (২৪), জবা (৩০), রুপালি (২১), রহিমা (৩৫), নাজমা (২৬), রিমা (১৮), আম্বিয়া (৩০), বিলকিস (৩২), আছমা (৩৩), জাহানারা (১৯), নিলা (২৭), শিল্পী (২৭), ফরিদা (২৮), চমপা (২৭), মলিনা (২৫), পায়েল (২৪),  নাঈমা (১৭), রোজিনা (২২), মুঞ্জুরী (২৮), নিলুফা (৩০), রোজিনা (২৫), সালমা (৩৫) ও জরিনা (৩৮)।

 

 

 

 

আহতদের মধ্যে দুইজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) এবং আরো কয়েকজনকে পাবনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। আরো কয়েক কর্মীকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়।

 

 

 

 

আহত শ্রমিক ও প্রত্যক্ষদর্শী আকবার আলীসহ কয়েকজনের দেওয়া তথ্যমতে, লিটন-রিপন পরিবহণ নামের একটি লোকাল বাস পাবনা আটঘড়িয়ার দেবোত্তর বাজার এলাকা থেকে ৪৮ জন নারী শ্রমিককে ইপিজেডে আনা-নেওয়ার কাজ করে। প্রতিদিনের মতো আজকেও তাদের বহনকারী লোকালবাসটি ঘটনাস্থলে থামে। ওই আসে কয়েকজন কর্মী উঠছিরেন। এই সময় পাবনার দিক আসা সোহানী পরিবহণ নামের একটি দ্রুতগ্রামী লোকালবাস পেছন থেকে শ্রমিক উঠানো বাসটিকে ধাক্কা দিলে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

 

 

 

 

ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক (আরএমও) শফিকুল ইসলাম শামীম  জানান, দুইজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ অবস্থায় পাঠানো হয়েছে। কয়েকজনকে পাবনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ও বাকিদের প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।
 

 

 

ঈশ্বরদী ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের সাব-স্টেশন অফিসার শামসুল ইসলাম  জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে গুরুতর আহত ২১ নারী শ্রমিককে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আনা হয়।

 

 

 

 

পাকশী হাইওয়ে পুলিশের ফাঁড়ির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন  জানান, ঘটনাস্থল থেকে দুর্ঘটনা কবলিত লোকাল বাস দুটিকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। তবে চালক ও হেলপারদের আটক করা সম্ভব হয়নি।