10 / 100 SEO Score

প্রথমবার্তা প্রতিবেদক:  আওয়ামী লীগ কখনও দুর্নীতিগ্রস্থদের প্রশ্রয় দেয় না। যুবলীগ চেয়ারম্যন ওমর ফারুক চৌধুরী যথার্থই বলেছেন। এই গডফাদারদের বিরুদ্ধে যত অভিযোগ, তা কি আইনশৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনী জানতো না। তাহলে আগে কেনো তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিল না। তবে যাদের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজী, অস্ত্রবাজী, টেন্ডারবাজী ও দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে, সবার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি যতবড়ই নেতা হন না কেন। কেন্দ্রীয় নেতা হলেও রেহাই পাবেন না। সবই সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে এমন নয়, কিছু কিছু প্রশাসনিক-আইন প্রয়োগকারী সংস্থা ও দুদককে বলা হয়েছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা।

 

 

 

 

তারা বলেন, আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি নিয়েছেন। কেউ রেহাই পাবেন না। ইতোমধ্যে বিভিন্ন অভিযোগের দায়ে ছাত্রলীগের দুই শীর্ষ নেতা সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী পদত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছে। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার পরিচালিত ক্যাসিনোতে অভিযান চালানো হয়েছে। এমন আরও যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে, প্রত্যেকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

 

 

 

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চাঁদাবাজ, অস্ত্রবাজ ও দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স অবস্থান নিয়েছেন। এখানে ছাত্রলীগ, যুবলীগ নয়, কেউ ছাড় পাবেন না। তিনি দল বা দলের বাইরের হোক। অপরাধী সবাই সমান।

 

 

 

 

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, সন্ত্রাস, অস্ত্রবাজ, চাঁদাবাজ ও দুর্নীতিবাজদের কোনো দল নেই। তারা যত বড়ই নেতা ও প্রভাবশালী হোক তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ রয়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও দুদককে নির্দেশনা দেওয়া আছে।

 

 

 

 

এক সভায় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, যত বড়ই নেতা ও প্রভাবশালী ব্যক্তি হোক দলের ভেতরে, অপকর্মের সাথে যারাই জড়িত থাকবে কোনো অবস্থাতেই ছাড় দেয়া হবে না। প্রভাবশালী হলেও সবার ব্যাপারে আইন একই ভাষায় কথা বলবে। আইনের শাসন একই রকম চলবে। দুর্নীতি গ্রস্থদের ব্যাপারে জোড় তদন্ত চলছে। অভিযোগ আসছে, অভিযোগের তদন্ত চলছে। ইতোমধ্যে আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা ও দুদককে জানানো হয়েছে। তারা তাদের কাজ করবে।