6 / 100 SEO Score

প্রথমবার্তা প্রতিবেদক: ‘ময়মনসিংহের হালুয়াঘাটে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে ধুরাইল ইউনিয়নের চকমোকামিয়া শহীদ খাজা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মফিজ উদ্দিনকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার সন্ধ্যায় তাকে আটক করা হয়।

 

 

 

 

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সকাল ১০টার দিকে ওই ছাত্রী সমাপনী মডেল টেস্ট পরীক্ষার প্রবেশপত্র সংগ্রহ করতে বিদ্যালয়ে যায়। এরপর অভিযুক্ত শিক্ষক মফিজ উদ্দিন ওই ছাত্রীকে বিদ্যালয় সংলগ্ন রেইনট্রি গাছের পাশে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেন। এ সময় মেয়েটির চিৎকারে অন্যান্য শিক্ষার্থী ও সহকারী শিক্ষকরা ছুটে আসলে মফিজ উদ্দিন পালিয়ে যান।

 

 

 

 

 

ওই ছাত্রীর মা জানান, চরগোরকপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির মডেল টেস্ট পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য প্রবেশপত্র সংগ্রহ করতে গেলে তার মেয়েকে শিক্ষক মফিজ উদ্দিন জাপটে ধরে স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয়ার চেষ্টা চালান। এ সময় মেয়েটির চিৎকারে অন্যান্য শিক্ষার্থী ও সহকারী শিক্ষকরা ছুটে আসলে মফিজ উদ্দিন পালিয়ে যান।

 

 

 

 

এদিকে এ ঘটনার খবর পেয়ে হালুয়াঘাট উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আলহাজ হোসাইন মোহাম্মদ ফারুক তাৎক্ষণিক সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা মোশারফ হোসেন ও গোলাম মোস্তফা খানকে ঘটনার তদন্ত করতে ঘটনাস্থলে পাঠান।

 

 

 

 

এ সময় তারা স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে প্রাথমিকভাবে ঘটনার সত্যতা পেয়ে শিক্ষক মফিজ উদ্দিনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানান।স্থানীয়রা জানান, শিক্ষক মফিজ উদ্দিন এর আগেও ছাত্রীদের সঙ্গে এ রকম একাধিক ঘটনা ঘটিয়েছেন। এলাকাবাসী তার শাস্তি দাবি করেন।

 

 

 

 

 

হালুয়াঘাট উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আলহাজ হোসাইন মোহাম্মদ ফারুক বলেন, খবর পেয়ে দুইজন সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তাকে ঘটনার তদন্তপূর্বক প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয়া হয়। প্রাথমিকভাবে ঘটনার সত্যতা পাওয়ায় শিক্ষক মফিজ উদ্দিনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

 

 

 

 

 

 

হালুয়াঘাট থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিপ্লব কুমার বিশ্বাস বলেন, ছাত্রীকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে শিক্ষক মফিজ উদ্দিনকে আটক করা হয়েছে। ওই ছাত্রীর পরিবারের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।