প্রথমবার্তা প্রতিবেদক:  কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের জেরে জঙ্গিদের হিট লিস্টে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। ভারতীয় শীর্ষ গোয়েন্দা বাহিনীর রিপোর্টে উঠে এসেছে এই চাঞ্চল্যকর তথ্য। রিপোর্ট অনুযায়ী, ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অমিত দোভালেরও নাম আছে পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মুহম্মদের এই হিট লিস্টে।

 

 

 

 

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ও গোয়েন্দা বিভাগের রিপোর্টে দেওয়া তথ্যমতে, ভারতের বিমানঘাঁটিগুলোতে আত্মঘাতী হামলার ছক কষছে জইশ-ই-মুহম্মদ। জঙ্গি সংগঠনটির পক্ষ থেকে সামশের ওয়ানি নামে একজন ১০ সেপ্টেম্বর বেসামরিক বিমান নিরাপত্তা ব্যুরোর নিকট একটি চিঠি পাঠায়। হিন্দিতে লেখা চিঠিতে একটি বার্তা ছিল, ‘৩৭০ ধারা নিয়ে সরকারের পদক্ষেপের বদলা নেওয়া হবে।’

 

 

 

 

 

৫ আগস্ট জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা সম্পর্কিত ৩৭০ ধারা বাতিল করে ভারত সরকার। একইসঙ্গে রাজ্যটিকে ভেঙে দুইটি আলাদা কেন্দ্রশাসিত রাজ্যে পরিণত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় কেন্দ্রের পক্ষ থেকে। এরপর থেকেই পাকিস্তানের জঙ্গি সংগঠনগুলো ভারতে বড় ধরনের হামলার পরিকল্পনা করে আসছিল বলে জানায় গোয়েন্দাসূত্র।

 

 

 

 

 

 

এছাড়া জম্মু ও কাশ্মীরের পুলিশসূত্র বলছে, গত ১০ দিনে ৮ বার ভারতীয় সীমান্তে ড্রোনের মাধ্যমে বেশ কিছু অস্ত্র ও স্যাটেলাইট ফোন ফেলা হয়েছে। ড্রোনগুলো পাকিস্তান থেকে পাঠানো হয়েছে বলে তারা জানিয়েছে। অস্ত্রগুলোর মধ্যে বেশ কয়েকটি একে ৪৭ রাইফেল এবং অনেকগুলো গ্রেনেড ছিল। পুলিশের সন্দেহ, জম্মু ও কাশ্মীরের জঙ্গিদের জন্য এগুলো পাঠানো হয়েছে।ভারতীয় গোয়েন্দাসূত্র বলছে, চলমান জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের যেকোনো একটি প্রোগ্রামে হামলা চালাতে পারে জঙ্গিগোষ্ঠী।

 

 

 

 

 

 

এদিকে জম্মু ও কাশ্মীরসহ ভারতের ৩০টি বড় শহরে সতর্কবার্তা জারি করেছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। শ্রীনগর, জম্মু, পাঠানকোট, অবন্তিপুরা ও হিন্দোনের বিমানবাহিনীর ঘাঁটিতে সতর্কতামূলক ‘কমলা সংকেত’ জারি করা হয়েছে। একইসঙ্গে কঠোর নিরাপত্তাসহ প্রতিরক্ষামূলক সকল সরঞ্জাম মোতায়েন করা হয়েছে স্থানগুলোতে।