মোস্তফা ফিরোজ:  আবরার ফাহাদ কি অপরাজনীতির বলি হলো? দলে যখন শুদ্ধি অভিযানের ঘোষণা, তখন ছাত্রলীগের বুয়েট শাখার নেতা-কর্মীদের হাতে নিহত হলো আবরার ফাহাদ। এটা যেন দলের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ।তার আগেও দেখা গেলো ঢাবিতে বিরোধী ছাত্র সংগঠনকে মারধর ও মধুর কেন্টিনে বসতে না দেয়ার ঘটনা। তাহলে এ কেমন শুদ্ধি অভিযান? আগের সাথে এখনকার অবস্থার পার্থক্য কোথায়?

 

 

 

 

তবু ধন্যবাদ ছাত্রলীগকে। তারা আবরার হত্যার নিন্দা করেছে। দোষীদের শাস্তির দাবি জানিয়েছে। এই ঘটনায় সাংগঠনিক তদন্তে কমিটি করেছে।একইভাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরও প্রতিবাদ করেছেন। তিনি বিস্ময় প্রকাশ করে বলেছেন, ভিন্নমতের কাউকে এভাবে মেরে ফেলতে হব? বিএনপি তো দিল্লী চুক্তিকে দেশ বিরোধী বলেছে। তাই বলে কি বিএনপি নেতাদের মেরে ফেলবো?

 

 

 

 

 

 

আবরার ফাহাদ কি অপরাধ করেছিলো যে তাকে মেরে ফেলতে হলো? সে কি অপরাধী? সে কি সন্ত্রাসী? সে কি ভিন্ন কোন দল ও সংগঠন করে? না, কিছুই না। সে তার ফেসবুকে দিল্লীতে দুই দেশের সই হওয়া চুক্তি বা সমঝোতার কিছু বিষয় নিয়ে বাংলাদেশের পক্ষে লিখেছে। তাহলেতো সে দেশপ্রেমিক।

 

 

 

 

 

 

কোন দল ও সংগঠন না করেও যে দেশের পক্ষে কথা বলে তাকেতো সবারই সম্মান ও শ্রদ্ধা করা উচিৎ ছিল। কিন্তু ওই বুয়েটের বড়ো ভাইয়েরা সেটা পছন্দ করেনি। তার ফেসবুকের স্ট্যাটাস দেখে মনে হয়েছে সে শিবির করে। দেশের পক্ষে কথা বললে সে শিবির হবে, এটা কেমন কথা? তাহলে অন্যরা কি দেশপ্রেমিক না? আজব যুক্তি।

 

 

 

 

 

 

আসলে এটা হচ্ছে ক্ষমতার রাজনীতির বহিঃপ্রকাশ। ভিন্নমত, ভিন্ন দল, ভিন্ন মানুষ সহ্য না করার স্বৈরতান্ত্রিক অপসংস্কৃতির রাজনীতি। উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে এখন আর গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক সংস্কৃতির চর্চা হয় না। এই কারনে যখন যে দল ক্ষমতায় থাকে, তার গর্ভে জন্ম নেয়া রাজনৈতিক কর্মীদের শিক্ষাটা হলো বিপক্ষের দল ও মতকে দমন করো। যদি প্রতিপক্ষ নিঃশেষ হয়ে যায়, তখন নিজ দলের ভিন্ন গ্রুপকেও নিশ্চিহ্ন করো।

 

 

 

 

 

 

এই প্রক্রিয়ায় রাজনীতি চলতে চলতে এখন তা ফ্রাঙ্কেনষ্টাইনে রুপ নিয়েছে। তাই শুদ্ধি অভিযানে দৃশ্যমান অনেক ঘটনার পরও কিছুতেই রাজনীতির পরাক্রমশালী দানবদের ঠেকানো যাচ্ছে না।লেখক: মোস্তফা ফিরোজ, হেড অব নিউজ, বাংলাভিশন

এই বিভাগের আরো খবর :

স্তন দেখিয়ে ক্যালেন্ডারে প্রিয়াঙ্কার ছবি!
কারাবন্দীদের মোবাইলের কথোপকথন রেকর্ড করা হবে
কোটিপতি পকেটমার চার বোনের অজানা রহস্য
সকলের সমালোচনায় ড. মিজান
মারাঠি যোদ্ধাদের বীরত্বগাথা 'পানিপথ' আসছে
মিথ্যাবাদী ট্রাম্প.....
অন্তর্বাস পছন্দে মেয়েরা যে বিষয়গুলো খেয়াল রাখবেন
রামমন্দির প্রতিষ্ঠায় এবার মরিয়া বিজেপি বাবরি মসজিদের স্থানে
ওবায়দুল কাদেরের মায়ের মৃত্যুতে ফখরুলের শোক
দূর করুন হাঁটুর ব্যথা ঘরোয়া উপায়ে
ঐক্যফ্রন্টের বৈঠকে সন্দেহের বিষবাষ্প
এক গ্লাস পানিতে এক চামচ মধু মিশিয়ে খেলেই রোগ বলবে পালাই পালাই!
সড়কে নামাজ পড়লে জরিমানা ২৩ হাজার টাকা!
গুম-খুন-গ্রেপ্তার করলে আন্দোলন থেমে যাবে না: মির্জা আব্বাস
মেসি তো আর একা বিশ্বকাপ জেতাতে পারবে না: এএফএ প্রেসিডেন্ট