6 / 100 SEO Score

প্রথমবার্তা, রিপোর্ট:  নিজেদের আকাশপথ ব্যবহারের অনুমতি দেয়নি পাকিস্তান। তাই দীর্ঘপথ অতিক্রম করে সৌদি আরব যাচ্ছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এর আগে নরেন্দ্র মোদির বোয়িং ৭৪৭ বিমানকে পাকিস্তানের আকাশসীমা ব্যবহারের অনুমতি দেয়নি সে দেশ। এই পরিস্থিতিই আজ সোমবার শুরু হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সৌদি সফর।

 

 

 

 

জানা গেছে, নরেন্দ্র মোদির বিশেষ বিমান দিল্লি থেকে মুম্বাই হয়ে আরব সাগরের ওপর দিয়ে রিয়াদের দিকে যাবে। এরইমধ্যে আরব সাগরে ঘূর্ণিঝড় কিয়ারের প্রভাব চলেছে। ১২ বছরে এটাই আরব সাগরে প্রথম ঘূর্ণিঝড়।

 

 

 

 

 

 

একটি সূত্র জানিয়েছে, পাকিস্তানের ওপর দিয়ে নরেন্দ্র মোদির বিমান যাওয়ার অনুমতি পেলে সরাসরি তা সুপার সাইক্লোন কিয়ারকে এড়িয়ে যেতে পারত। কিন্তু তা না হওয়ায় এবার বিমানকে করাচির এয়ারস্পেশের পাশাপাশি এড়িয়ে যেতে হচ্ছে কিয়ারকেও। এর ফলে দিল্লি থেকে রিয়াদ পৌঁছাতে ৪৫ মিনিট বেশি সময় লাগতে পারে।

 

 

 

 

এদিকে, রবিবার ভারতের আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, ঘূর্ণিঝড় কিয়ার সম্ভবত আগামী ৫ দিনে ওমান উপকূলের দিকে যাবে। কিন্তু মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত এর গতিবেগ বজায় থাকবে। এরপর আস্তে আস্তে তা দুর্বল হয়ে পড়বে।

 

 

 

 

সোমবার রিয়াদে পৌঁছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সৌদি বাদশাহর সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। গত ফেব্রুয়ারি থেকেই পশ্চিমের সঙ্গে দিল্লির আকাশপথে যোগাযোগের ক্ষেত্রে পাকিস্তানকে এড়িয়ে চলতে হচ্ছে। এর আগেও ভারতের রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রীকে বিকল্প রুটে যেতে হয়েছে।

 

 

 

 

 

বালাকোটে ভারতীয় বিমাবাহিনীল অভিযানের পর থেকেই তাদের আকাশসীমা ভারতের জন্য বন্ধ করে দেয় পাকিস্তান। এরপর ১৬ জুলাই পাকিস্তানের আকাশপথ বাণিজ্যিক এবং চাটার্ড বিমানের জন্য খুলে দেওয়া হয়। সেপ্টেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রে হাউডি মোদি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাওয়ার সময়ও মোদির বিশেষ বিমানকে তাদের আকাশসীমা ব্যবহার করতে দেয়নি পাকিস্তান। চলতি মাসে ভারতের রাষ্ট্রপতি বিকল্প রুটে ইউরোপ সফর করেন।