প্রথমবার্তা, রিপোর্ট: সৌদি আরবের রাজপরিবারের কঠোর সমালোচক প্রখ্যাত সাংবাদিক জামাল খাসোগিকে হত্যার জন্য সৌদি যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমানকে সবুজ সংকেত দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উপদেষ্টা ও জামাতা জারেড কুশনার।মুহাম্মদ বিন সালমান হচ্ছেন সৌদি আরবের কার্যত শাসক এবং জারেড কুশনারের ঘনিষ্ঠ বন্ধু। খবর ব্রিটিশ সাপ্তাহিক দ্য স্পেক্টেটরের।

 

 

 

 

 

মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের তদন্ত কমিটি বিষয়টি আরও গভীরে গিয়ে তদন্ত করবে বলে পরিকল্পনা করছে।সৌদি আরবের রাজপরিবারের একসময়কার ঘনিষ্ঠ খাসোগি গত বছরের ২ অক্টোবর তুরস্কের সৌদি কনস্যুলেট ভবনে জরুরি কিছু কাগজপত্র আনতে গিয়ে নিখোঁজ হন এবং মুহাম্মদ বিন সালমানের অনুগত নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা খাসোগিকে হত্যা করে এবং তার মরদেহ গুম করে ফেলে।

 

 

 

 

 

মার্কিন দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্টের খ্যাতনামা কলামিস্ট জামাল খাসোগি সৌদি সরকারের নানাবিধ অন্যায় এবং ভুল নীতির কঠোর সমালোচনা করতেন।ওয়াশিংটন পোস্ট গত বছরের নভেম্বর মাসে জানিয়েছিল, মার্কিন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা বা সিআইএ তাদের তল্লাশির মাধ্যমে এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছে যে, যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমানের নির্দেশে খাসোগিকে হত্যা করা হয়েছে।

 

 

 

 

 

জাতিসংঘের একটি তদন্ত কমিটিও বলেছিল, খাসোগি হত্যার প্রধান সন্দেহভাজন ব্যক্তি হচ্ছেন সৌদি যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমান।জামাল খাসোগি হত্যার পর বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে তুলে ধরে তুরস্ক সরকার।