প্রথমবার্তা, রিপোর্ট:   পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ইব্রাহিম মাতুবব্বর (৪০) ও আল আমিন খান (৩০) নামে দুই দিনমজুরের মর্মান্তিক মৃত্যু ঘটেছে। আজ বৃহস্পতিবার উপজেলার ইকড়ি গ্রামের এক গৃহস্থ বাড়ির পুকুরের কচুরিপানা পরিষ্কার করতে গিয়ে পুকুর লাগোয় পল্লী বিদ্যুতের তারের স্পর্শে ওই দুই দিনমজুর ঘটনাস্থলে নিহত হন। নিহত দিনমজুর ইব্রাহিম ইকড়ি গ্রামের মৃত ফেরেস্তালী মাতুব্বর এর ছেলে ও আল আমিন একই গ্রামের হারুন খানের ছেলে।

 

 

 

 

হাসপাতাল ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, আজ বৃহস্পতিবার এ দুই দিনমজুর ভাণ্ডারিয়ার ইকড়ি গ্রামের হাফেজ মোস্তফার বসতবাড়ির পুকুরে কচুরিপানা পরিষ্কার করছিলেন। এ সময় লোহাররড দিয়ে পুকুর থেকে কচুরিপানা তীরের দিকে টেনে আনার সময় পুকুরলাগোয়া পল্লী বিদ্যুৎ লাইনের সঙ্গে লোহার রডের স্পর্শ লাগে। এ সময় ওই দুই দিনমজুর বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। স্থানীয়র আহত দুজনকে ভাণ্ডারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। স্থানীয় ইকড়ি ইউপি চেয়ারম্যান মো. হুমায়ুন কবির দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, পল্লী বিদ্যুতের এ লাইনের তার পুকুর ছুঁই ছুঁই অবস্থায় স্থাপন করায় দুই দিনমজুর এ দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন। এ ঝুঁকিপূর্ণ বৈদ্যুতিক লাইন নিরাপদ দূরত্বে স্থাপনের বিষয়ে এলাকাবাসী দাবি জানিয়েছে।

 

 

 

 

 

 

ভাণ্ডারিয়া পল্লী বিদ্যুতের এজিএম লিটন চন্দ্র দে জানান, দুর্ঘটনার বিষয়টি শুনেছি তবে এ লাইনটি মঠবাড়িয়া উপজেলার সাফা এলাকা থেকে নিয়ন্ত্রণ করা হয়। বিষয়টি সরেজমিনে দেখার জন্য ওই দপ্তরে জানানো হয়েছে। ভাণ্ডারিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ফরিদ হোসেন দুর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় ভাণ্ডারিয়া থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হবে। মৃত দুই দিনমজুরের পরিবারের পক্ষ হতে অভিযোগ দায়ের করলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।