প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :স্বাস্থ্য সুরক্ষায় নিম গাছের নানা অংশকে ব্যবহার করতে পারেন আপনি। নিমগাছের ঔষধি গুণ তুলনাহীন। রোগ প্রতিকার ও নিরাময় নিমের রয়েছে অনন্য ভূমিকা।

আসুন, জেনে নিই, শরীরের যত্নে ও স্বাস্থ্য সুরক্ষায় নিমকে কীভাবে ব্যবহার করা যায়..

দাঁতের যত্নে :
কচি নিম ডাল দিয়ে দাঁত মাজলে দাঁত ভালো থাকে। নিম পাউডার দিয়ে দাঁত মাজলে দাঁত ও মাড়ি থাকে সবল।

আলসার নিরাময়ে :
নিম পাতা ও নিম বীজের রস খেলে আলসার ভাল হয়।

ক্যান্সার প্রতিরোধে :
ক্যান্সার প্রতিরোধে নিমপাতার ভূমিকা অতুলনীয়। বিশেষ করে নিম তেল, বাকল ও পাতার রস ব্যবহারে ক্যান্সার-টিউমার, স্কিন ক্যান্সার প্রভৃতি উপশম হয়।

হৃদরোগ প্রতিকারে :
নিম পাতার রস খেলে হৃদরোগে উপকার পাওয়া যায়। নিম পাতার রস ব্লাডপ্রেশার ও কোলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে। নিম রক্ত পাতলা করে, হার্টবিট কমাতেও ভূমিকা রাখে।

জন্ডিস প্রতিকারে :   
২৫-৩০ ফোঁটা নিমপাতার রস একটু মধুর সাথে মিশিয়ে সকালে খালি পেটে খেলে জন্ডিস রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

বহুমূত্র রোগ নিরাময়ে :
প্রতিদিন সকালে ১ চামচ নিমপাতার রস  খালি পেটে ৩ মাস খেলে ডায়বেটিস ভাল হয়। নিম পাতার রস খেলে ইনসুলিন নেয়ার প্রবণতা ৩০-৭০% কমে যায়।

চোখের ব্যথা নিরাময়ে :
চোখে চুলকানি হলে পানিতে দশ মিনিট নিমপাতা সিদ্ধ করে ঠাণ্ডা করে নিয়ে চোখে সেই পানির ঝাপটা দিলে আরামবোধ করবেন।

মাথাধরা সারাতে :
মাথাব্যথা একটি কমন রোগ। তাই যদি নিম তেল নিয়মিত মাখেন মাথা ধরা কমে যাবে।

কৃমি নিরাময়ে :
৩-৪ গ্রাম নিমের ছাল গুঁড়ো করে সামান্য পরিমাণ সৈন্ধব লবণসহ সকালে খালি পেটে এক সপ্তাহ খেলে কৃমির উপদ্রব হতে রক্ষা পাওয়া যায়। নিয়মিত এক সপ্তাহ সেবন করতে হবে।

তথ্যসূত্র: হেলথলাইন