প্রথমবার্তা,নিজস্ব প্রতিবেদক:   গত অর্থবছরের তুলনায় এ বছর এখন পর্যন্ত (প্রথম ৭ মাসে) রাজস্ব খাতে ১২ হাজার কোটি টাকা বেশি প্রবৃদ্ধি বেড়েছে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

 

 

 

তিনি বলেন, প্রবৃদ্ধি হিসাব হবে গত বছর এ সময়ে আমরা কী অর্জন করেছি এবং এ বছর কেমন অর্জন করলাম। কিন্তু এ বছর যদি কম হয়, তাহলে দ্যাট ইজ নেগেটিভ গ্রোথ। আর যদি গত বছরের তুলনায় বেশি করি, তাহলে পজিটিভ গ্রোথ। আমার জানা মতে, এ বছর ১২ হাজার কোটি টাকার বেশি প্রবৃদ্ধি অর্জন আছে।

 

 

 

 

আজ বৃহস্পতিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত সরকারি ক্রয়-সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে শেষে সাংবাদিকদের অর্থমন্ত্রী এসব কথা জানান।

 

 

 

 

রাজস্ব ঘাটতি প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, আমাদের রাজস্ব লক্ষ্যমাত্রা দেওয়া হয় বড় আকারের, যাতে এটি অর্জন করার জন্য সবাই চেষ্টা করে। এ বিষয়ে আমাদের প্রকাশনাগুলো দেখবেন, সারা বিশ্বের অবস্থা দেখবেন, তারপর বলবেন আমরা কেমন আছি। রাজস্ব আহরণ গতবছরের তুলনায় এ বছর কমেনি।

 

 

 

 

তিনি বলেন, আপনারা যে পদ্ধতিতে হিসাব করেন সেই পদ্ধতিতে হিসাব করা নিয়ম না। প্রবৃদ্ধি হিসাব হবে গত বছর এই সময়ে আমরা কি অর্জন করেছি এবং এ বছর কেমন অর্জন করলাম।

 

 

 

 

ব্যাংক কোম্পানি আইনের খসড়ায় প্রস্তাব করা হয়েছে যে, প্রাইভেট ব্যাংকের ডিরেক্টর, এমডি, ডিএমডি নিয়োগের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ব্যাংক একটি নিয়োগ বোর্ডের মাধ্যমে অ্যাপ্রুভ করলে তাদের নিয়োগ হবে।

 

 

 

এ সংক্রান্ত ধারা সংযুক্ত হচ্ছে, এ বিষয়ে মুস্তফা কামাল বলেন, খসড়া ব্যাংকিং কোম্পানি অ্যাক্টের নতুন ধারা আছে একটি। এটি আমি এখনও পাইনি। আমার কাছে খসড়া এলে বলতে পারবো।

 

 

 

যদি এটি হয় তাহলে বাস্তবায়ন করা গেলে ভাল হবে। সরকারি ব্যাংকের ক্ষেত্রে এভাবেই অনুমোদন নিয়ে করা হয়। সুতরাং বেসরকারি ব্যাংকের ক্ষেত্রেও এভাবে অনুমোদন নিয়ে স্ট্রাকচার বডির আওতায় যদি এটি করা যায়, তাহলে ভালো হবে। সেটা ভালো কাজ, আস্তে আস্তে ভালো কাজের দিকে যেতে হবে।

 

 

 

 

আমাদের ব্যাংকিং কোম্পানি আইন বিদ্যমান আছে। এখানে কিছু অ্যামেনমেন্ট আনতে হবে এ আইনে। পুরো আইন চেঞ্জ করতে হবে না। প্রপোজাল এলে আমিই নিয়ে যাবো কেবিনেটে। সেখানে আলোচনা করে কেবিনেট যেগুলো গ্রহণ করবে সেগুলোই সংসদে অনুমোদনের জন্য যাবে, সেটাই নিয়ম; যোগ করেন মুস্তফা কামাল।

এই বিভাগের আরো খবর :

কঠিন চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ল ভারত....
ক্যান্সারের চতুর্থ ধাপে থেকেও পাহাড়ে আরোহণ
আবুধাবিতে তৈরি হবে প্রথম হিন্দু মন্দির
ঈশ্বরদীতে দুই ছিনতাইকারীকে গনপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ
ইউএস-বাংলার বিমান বিধ্বস্তের প্রাথমিক রিপোর্ট প্রকাশ
পাবনার বেড়ায় পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা কর্মসূচি পালিত
এত নির্যাতনের পরও এত ভালোবাসা
সোনারগাঁয়ে নিস্পাপ দুই সন্তানকে গলা কেটে হত্যা চেষ্টা,পরকীয়া’র জের
অযোধ্যায় ১৪৪ ধারা জারি বাবরি মসজিদ মামলার রায় ঘিরে
আজ থেকে আর স্বামী-স্ত্রী থাকছেন না শাকিব-অপু
‘জীবনে তার মতো সুন্দরী চোখে দেখিনি’
'বাংলাদেশে স্বৈরশাসন চলছে’ প্রতিবেদনটি ঢালাও এবং অযাচিত'
সাবধান আল্লাহর ‘সংরক্ষিত এলাকা’ থেকে!
‘স্যার, আমা‌দের থ্রি-পিসটা পর‌তে দেন’
ব্যাপক উন্নতি সাধন করেছে বাংলাদেশ শাকসবজি উৎপাদনে: প্রধানমন্ত্রী