প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: করোনাভাইরাস মোকাবেলার জন্য যখন সারা ভারতের নজর স্বাস্থ্যসেবাকর্মীদের দিকে, ঠিক সেই সময়ে দেশটির বিহারে একশ ৯৮ জন চিকিৎসককে তাদের কর্মক্ষেত্রে পাওয়া যায়নি। গত ৩১ মার্চ, ১ ও ২ এপ্রিল তাদেরকে দায়িত্ব পালন করতে দেখা যায়নি বলে রাজ্যের স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের এক প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে।

কর্মক্ষেত্রে অনুপস্থিত চিকিৎসকদের কাছে কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠিয়েছে বিহারের স্বাস্থ্য বিভাগ। তাদের প্রত্যেককেই এ ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানাতে বলা হয়েছে। অনুপস্থিত চিকিৎসকদের মধ্যে চাকরি স্থায়ী হয়েছে ৪০ জনের। অন্যরা চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ পেয়ে কাজ করছেন।

অথচ করোনাভাইরাস ছড়িয়ে যাওয়া ঠেকাতে লকডাউনের মধ্যে সকল চিকিৎসকের ছুটি বাতিল করে নিয়মিত চিকিৎসা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে রাজ্যের স্বাস্থ্য বিভাগ। সেই নির্দেশনা অমান্য করেই তারা অনুপস্থিত ছিলেন। জানা গেছে, বিহারে অন্তত ৩২ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন।

বিহারের স্বাস্থ্য বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা সঞ্জয় কুমার বলেছেন, অনুপস্থিত চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে মহামারি রোগ সংক্রান্ত আইন ১৯৮৭ অনুসারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়া দুর্যোগ মোকাবেলা আইন ২০০৫ অনুসারেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।