প্রথমবার্তা, প্রতিবেদক: করোনার লকডাউনের কারণে পরিবহন না থাকায় মুরগির ডিমের ব্যবসা প্রায় বন্ধ। সম্প্রতি ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পূর্ব বর্ধমান জেলার এক পোলট্রি ফার্মে জমে যাওয়া কয়েকশো ডিম নির্জন জায়গায় ফেল দেয় খামারের মালিক।

 

 

 

ফেলে দেওয়া ডিম থেকে জন্ম নিয়েছে কয়েকশো মুরগির ছানা! রাশি রাশি ডিমের পাহাড় ভেদ করে গুটি গুটি পায়ে বেরিয়ে আসে বাচ্চাগুলি। চোখে পড়ে সবার।

 

 

 

নির্জন জায়গায় যেন প্রাণের বন্যা। এমনই একটি ভিডিও ফুটেজ ভাইরাল হয়ে গিয়েছে। কিন্তু ভিডিওটি কোথা থেকে এবং কবে তোলা তা নিশ্চিতভাবে জানা যায়নি। হোয়াটসআ্যপে শেয়ার হয়ে চলেছে। সকলেই বলছেন, প্রকৃতির ইচ্ছায় অসাধ্যসাধন হয়।

 

 

 

 

কিন্তু বাস্তবে কতটা সত্যতা রয়েছে এমন ঘটনার? পূর্ব বর্ধমান জেলার এক প্রাণী বিশেষজ্ঞ শঙ্খ ঘোষের কাছে জানতে চাওয়া হলে বলেন, ‘বাইরে খোলা জায়গায় ডিমগুলি ফেলে দিয়ে আসার পর এভাবে আপনা আপনি বাচ্চা ফোটা সম্ভব নয়।

 

 

 

 

একমাত্র কৃত্রিম উপায়ে ইনকিউবেটরে মুরগির বাচ্চা ফোটানো হয়। আমার মনে হয় কোনও ফামের্র ইনকিউবেটরে এই বাচ্চাগুলি জন্ম নেওয়ার পর সেগুলি ডিমের খোসা-সহ বাইরে লুকিয়ে ফেলে আসা হয়েছিল। পরে অন্যান্যদের নজরে পড়ে।’