প্রথমবার্তা, প্রতিবেদকঃ সংস্কার কাজের জন্য প্রস্তুত করা হচ্ছে মক্কায় অবস্থিত সাওর ও হেরা গুহা। করোনা সৃষ্ট চলমান লকডাউনের মধ্যেই জরুরি ভিত্তিতে সংস্কার কাজ শেষ করা হবে বলে জানা গেছে। সৌদিভিত্তিক সংবাদমাধ্যম এসপিএ’র সূত্রে জানা গেছে, মক্কা প্রদেশের শাসক যুবরাজ খালেদ আল ফয়সাল এই সংস্কার কাজের অনুমোদন দেন। মক্কার ভারপ্রাপ্ত আমির যুবরাজ বদর বিন সুলতান উক্ত সংস্কার কাজের সার্বিক তত্ত্বাবধানে থাকবেন।

 

মসজিদুল হারাম থেকে দুই মাইল দূরে অবস্থিত হেরা গুহা। গুহাটি দৈর্ঘ্যে প্রায় চার মিটার ও প্রস্থে দেড় মিটারেরও বেশি। ৬১৯ খ্রিস্টাব্দে পবিত্র রমজান মাসে এই হেরা গুহাতেই প্রিয় নবী মুহাম্মদ সা.-এর উপর পবিত্র কুরআন অবতীর্ণ হয়েছিল।

হিজরতের সময় মক্কার কুরাইশগোষ্ঠীর আক্রমণ থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য নবীজী সা. আবু বকর সিদ্দিক রা.কে নিয়ে সাওর গুহায় আত্মগোপন করেছিলেন। গুহাদদুটির সংস্কার কাজ সৌদির রাজকীয় কমিশন ও মক্কা প্রদেশের উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের যৌথ তত্ত্বাবধানে পরিচালিত হবে বলে জানা গেছে।

 

 

বিগত বছরগুলোতে সংস্কার কাজের অভাবে পবিত্র গুহাদ্বয়ের ব্যাপক সৌন্দর্যহানিসহ স্থানচ্যুতি ঘটায় উক্ত পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়। ইতিপূর্বে সংস্কারের পরিকল্পনা থাকলেও স্বাভাবিক সময়ে গুহাদ্বয় বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আগত হাজীদের দ্বারা লোকারণ্য থাকায় তা সম্ভব হয়নি।

 

 

সিঁড়িসহ গুহাদুটিকে তাদের মূল স্থানে স্থানান্তরিত করা হবে। প্রথম ৩০ দিনে গুহাস্থিত পাথরগুলোয় থাকা সব পুরনো লেখা ও খোদাই মুছে ফেলা হবে। প্রযুক্তি ব্যবহার করে গুহাগামী রাস্তাগুলোতেও সংস্কার কাজ চালানো হবে। গুহাভ্যন্তরে দস্তার শামিয়ানা, কাঠের জিনিসপত্রসহ কনক্রিটের যাবতীয় অবকাঠামো অপসারণ করা হবে। পুনর্নিমাণ করা হবে গুহা পরিপার্শ্বের সবকিছু