প্রথমবার্তা, প্রতিবেদকঃ   মহামারি করোনার কারণে বিশ্বের প্রায় প্রতিটি দেশেই ব্যবসা-বাণিজ্যে ভাটা পড়েছে। এর ব্যতিক্রম হয়নি জার্মানিতেও। রেস্তোরাঁ ও হোটেলসহ অনেক প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।এদিকে করোনা সংকটে রেস্টুরেন্ট ও হোটেল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বিপদে পড়েছে জার্মানির বিয়ার উৎপাদন প্রতিষ্ঠানগুলো।

 

 

নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়ে পড়েছে হাজার হাজার লিটার বিয়ার। উপায় না দেখে বিনামূল্যে বিয়ার বিতরণ করছে ভিলিঙ্গার ব্রাউহাইস নামের একটি প্রতিষ্ঠান। এরই মধ্যে জার্মানির হেসে রাজ্যের এই উৎপাদক দুই হাজার ৬০০ লিটার বিয়ার বিতরণ করেছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।প্রতিষ্ঠানের মালিক ফ্রানৎস মাস্ট রয়টার্সকে জানান, বিনামূল্যে বিয়ার বিতরণের সময় যেভাবে সবাই আসছে আমি তাদের সবাইকে ধন্যবাদ জানাতে চাই।

 

 

আমরা আশা করবো এখন যারা আসছেন, তারা পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেও এভাবেই আমাদের সঙ্গে থাকবেন। স্থানীয় ক্রেতারা প্রায় প্রতিদিনই এই সুযোগ কাজে লাগানোর জন্য সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ও মাস্ক পরাসহ নানা নির্দেশনা মেনে সকাল থেকে লাইনে দাঁড়াচ্ছেন।বিভিন্ন এলাকার রেস্টুরেন্ট, বার ও হোটেলে এইসব বিয়ার সরবরাহ করার কথা ছিল।

 

 

কিন্তু করোনা মহামারির কারণে সব বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বিপদে পড়েছে ভিলিঙ্গার ব্রাউহাইস। এদিকে ধীরে ধীরে জার্মানির বিভিন্ন রাজ্যে সবকিছু খুলতে শুরু করেছে। ফলে পরিস্থিতি পুরোপুরি স্বাভাবিক হওয়ার আগে নতুন বিয়ার উৎপাদনে যেতে হবে প্রতিষ্ঠানটিকে।করোনা মহামারি অন্যান্য খাতের মতো জার্মানির বিয়ার উৎপাদনকেও ব্যাপকভাবে ব্যাহত করেছে।

 

 

গ্রীষ্মকালে পুরো জার্মানি জুড়ে নানা ধরনের বিয়ার উৎসবের আয়োজন হয়ে থাকে। কিন্তু এবার বাভারিয়ার রাজ্যের বিখ্যাত অক্টোবরফেস্টসহ অন্যসব বিয়ার উসবও বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। সেই সাথে চীন ও ইটালিতে রপ্তানিও বন্ধ হয়ে গেছে।জার্মানির বিয়ার উৎপাদকদের সংগঠন ডয়চে ব্রাউয়ার বুন্ড এই খাতে বড় ধরনের ধস নামার আশঙ্কা রয়েছে।