প্রথমবার্তা, প্রতিবেদকঃ  ময়মনসিংহের গৌরীপুরে চাচার বিরুদ্ধে ধর্ষণের চেষ্টা, অশ্লীল ছবি ধারণ ও ছবি ছড়িয়ে দেয়ার অভিযোগে মামলা করেছে ভাতিজি। বুধবার (২০ মে) রাতে গৌরীপুর থানায় মামলাটি করা হয়েছে।

 

অশ্লীল ছবি ছড়িয়ে দেয়ার কাজে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ ৪জনকে গ্রেফতার করেছে। তবে ভিকটিমের দাবি, গ্রেফতারকৃতরাই তাকে সহযোগিতা করেছে অশ্লীল ছবির বিষয়ে জানতে ও ছবি সংগ্রহ করতে।

 

ওরা তাঁর মামলার আসামী নয়, স্বাক্ষী।ভিকটিম জানায়, সহনাটী ইউনিয়নের বহেড়াতলা গ্রামের মোঃ জালাল উদ্দিনের পুত্র মোঃ মাজহারুল ইসলাম (২২) তাকে প্রায় এক বছর পূর্বে ধর্ষণের চেষ্টা করে এবং মোবাইলে অশ্লীল ছবি ধারণ করে। সে তার সম্পর্কে চাচা হয়।

 

কাউকে জানালে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। এ ছবির ভয় দেখিয়ে অবৈধ সম্পর্ক করার চেষ্টা করে। আমি রাজি না হওয়ায় এ ছবি ব্লুটুথের মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়।

 

এদিকে অশ্লীল ছবি ছড়িয়ে দেয়ার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে বুধবার রাতে পুলিশ সহনাটী ইউনিয়নের বহেড়াতলা গ্রামের মোঃ রুহুল আমিনের পুত্র মোঃ রাকিবুর রহমান শায়র (১৮), মোঃ হাদিস মিয়ার পুত্র মোঃ ইয়াসিন মিয়া (১৮), মোঃ জুলহাস মিয়ার পুত্র মোঃ উজ্জল মিয়া (২৩) ও মোঃ মতিউর রহমানের পুত্র মোঃ রোমান মিয়া (১৮) কে গ্রেফতার করে।

 

গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ বোরহান উদ্দিন জানান, গ্রেফতারকৃতরা বাদীর লিখিত এজাহারভূক্ত আসামী, তারা অশ্লীল ছবি সংগ্রহ ও প্রচার করায় পর্ণোগ্রাফি আইনে আসামী হয়েছে।

 

এদিকে ভিকটিম (১৪) জানান, এজাহারে কাদের নাম আছে, তা আমাকে জানানো হয়নি। শুধু স্বাক্ষর নেয়া হয়েছে। এ প্রসঙ্গে ভিকটিমের বাবাও জানান, গ্রেফতারকৃত ৪জন এ ঘটনায় জড়িত নয়। মূলহোতা আমার চাচাতো ভাই মোঃ মাজহারুল ইসলাম, সেই সব করেছে।