প্রথমবার্তা, প্রতিবেদকঃ  প্রায় দুইশত বছরের ইতিহাসে এবারই প্রথম কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ায় ঈদের বৃহত্তম জামাত অনুষ্ঠিত হচ্ছেনা।করোনা পরিস্থিতিতে মুসল্লীদের জীবনের ঝুঁকি বিবেচনা করে ঈদগাহ বা খোলা জায়গার পরিবর্তে ঈদের জামাত নিকটস্থ মসজিদে আদায় করার অনুরোধ জানানো হয়েছে।

 

করোনা ভাইরাসের সংক্রমন রোধে এ সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছেন কিশোরগঞ্জের জেলা প্রশাসক সারওয়ার মোর্শেদ চৌধুরী। গত বৃহস্পতিবার ঈদ জামাতের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে আলেম ওলামাদের সাথে বৈঠক করে ধর্ম মন্ত্রণালয়।

 

বৈঠকে ঈদের জামাত খোলা ময়দান বা ঈদগাহের পরিবর্তে নিকটস্থ মসজিদে আদায়ের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হয়। এছাড়াও কোলাকুলি ও করমর্দনের বিষয়ে নিরুৎসাহিত করা হয়।

 

১৮২৮ সালে প্রথম শোলাকিয়ায় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এবার অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল ১৯৩তম ঈদুল ফিতরের বড় জামাত। ঈদগাহের শুরু থেকে আজ পর্যন্ত শোলাকিয়ায় কখনো ঈদের জামাত বন্ধ হয়নি। এবারই করোনা ভাইরাসের কারনে ঈদের জামাত বন্ধ করা হলো।