প্রথমবার্তা, প্রতিবেদকঃ  কোন ধরনের উপসর্গ ছাড়াই আমেরিকায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ছিলেন মোট রোগীর ৩৫ শতাংশ। যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় রোগ নিয়ন্ত্রণ এবং প্রতিষেধক সেন্টার (সিডিসি)’র পক্ষ থেকে পরিচালিত সর্বশেষ এক পর্যবেক্ষণ প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

 

করোনা প্রতিরোধ এবং সংক্রমণ রোধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের লক্ষ্যে সিডিসির পক্ষ থেকে বিভিন্ন ধরনের ৫টি পরিকল্পনা গ্রহণের সময় এ পর্যবেক্ষণ উঠে এসেছে।

 

এরমধ্যে রয়েছে সংক্রমণের গতি-প্রকৃতি, আক্রান্ত হবার প্রাক্কালের লক্ষণ এবং কোন ধরনের লক্ষণ না থাকা। অর্থাৎ ইতিমধ্যেই যেসব লক্ষণ নির্দ্ধারণ করা হয়েছে তার একটিও রোগীর দেহে না থাকা।

 

গভীর এই গবেষণা-পর্যবেক্ষণের পর সিডিসি ২২ মে শুক্রবার এ তথ্য প্রকাশ করেছে। এই শ্রেণীর রোগীর মাধ্যমে খুব বেশী সংখ্যক মানুষের মাঝে ভাইরাসের বিস্তার ঘটেছে।

 

কারণ, তাপমাত্রা স্বাভাবিক, সর্দি-কাশী নেই, মাথা ব্যথা নেই, চোখও স্বাভাবিক, শারীরিক দুর্বলতা না থাকায় কেউই এ নিয়ে চিন্তিত ছিলেন না।সিডিসি উল্লেখ করেছে যে, এমন লক্ষণওয়ালা রোগীর সংস্পর্শে আসা লোকজনের মধ্যে যারা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তাদের মারা যাবার শঙ্কা ০.৪ শতাংশ।

 

সিডিসির বিশ্লেষণ অনুযায়ী যুক্তরাষ্ট্রে মোট আক্রান্তের মধ্যে মারা যাবার হার বেড়েছে ১ শতাংশ। সিডিসি উল্লেখ করেছে যে, শারীরিকভাবে দুর্বল হয়ে পড়ার আগেই ৪০ শতাংশ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছেন।