প্রথমবার্তা, প্রতিবেদকঃ উপসাগরীয় অঞ্চলের মুসলিম রাষ্ট্র সৌদি আরব আর সংযুক্ত আরব আমিরাতে মসজিদে ঈদের নামাজ জামাতে হবে না। শুক্রবার দেশ দুটির কর্মকর্তারা ঈদ-উল-ফিতর উৎসবে মসজিদগুলো নামাজের জন্য বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছে।

 

এসময় করোনা সংক্রমণ যাতে আরো ছড়িয়ে না পড়ে সেজন্য জনগণকে সুরক্ষা নির্দেশনাগুলো অনুসরণ করতে আহ্বান জানিয়েছেন তারা।রমজানের সমাপ্তি উপলক্ষে উপসাগরীয় অঞ্চলে আগামীকাল রোববার ঈদ-উল-ফিতর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। তবে, সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাত জানিয়ে দিয়েছে, এবার ঈদ-উল-ফিতর উৎসবে মসজিদগুলোতে জামাত অনুষ্ঠিত হবে না।

 

করোনা সংক্রমণ রোধে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।সৌদি ইসলামবিষয়কমন্ত্রী আবদুল লতিফ আল শেইখের বরাত দিয়ে দেশটির সরকারি টেলিভিশন চ্যানেল জানিয়েছে, মসজিদগুলোতে ঈদের জামাত আদায় না করার ব্যাপারে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সেসময় মসজিদগুলো বন্ধ থাকবে।

 

সৌদি প্রেস এজেন্সি জানায়, গতকাল শুক্রবার জুমার খুতবায় মদিনায় অবস্থিত মসজিদে নববির ইমাম শেইখ আব্দুল বারি আল তুবাইতি বলেছেন, ‘মহামারির কারণে মুসলমানরা বাড়িতে ঈদের নামাজ আদায় করবে।’এদিকে সংযুক্ত আরব আমিরাতের সরকারি দপ্তর থেকে টুইটারের এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ঈদের দিন মসজিদগুলো বন্ধ থাকবে।

 

সেখানে কোনো ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে না। এছাড়া, পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা-সাক্ষাৎ এবং শিশুদের অর্থ বা উপহার দেয়ার মতো কোনো ধরণের ঈদ আনুষ্ঠানিকতা যাতে পালন না করা হয়, সে বিষয়ে জনসাধারণকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

সূত্র- হিন্দুস্তান টাইমস।