প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট : তাঁর আকষ্মিক মৃত্যুর ঘটনা সবাইকে মুষড়ে দিয়েছে। তবে এখন সবাই জানতে চাইছে ঘটনা আসলে কীভাবে ঘটলো? কী হয়েছিল? সত্যিই কি হার্ট অ্যাটাক হয়েছিল? কেউ কেউ বলছেন ড্রাগের কারণে এমন মৃত্যুর শিকার হয়েছেন মুম্বাইয়ের সর্বকালের অন্যতম শীর্ষ নারী তারকা। তবে সবকিছু ছাপিয়ে মানুষের জিজ্ঞাসু মন নিশ্চিত হতে চাইছে ‘রূপ কি রানী’র মারা যাওয়ার আগে কী ছিল ঘটনা পরম্পরা।

 

পারিবারিক সূত্র জানায়, আত্মীয়র বিয়ে খেতে আরব আমিরাতে যাওয়া শ্রীদেবীকে সেখানে রেখে মুম্বাই ফিরে এসেছিলেন স্বামী বনি কাপুর আগেই। আর বড় মেয়ে জাহ্নবি শ্যুটিং থাকার সূত্রে দেশে ছিলেন আগে থেকেই।

 

তবে শ্রী’র শেষ সময়টুকুর বয়ান পাওয়া গেছে আমিরাতের প্রভাবশালী দৈনিক খালিজ টাইমসের এক প্রতিবেদনে। পারিবারিক ঘনিষ্ঠ সূত্র উল্লেখ করে পত্রিকাটি সোমবার জানিয়েছে, বনি কাপুর দুবাইতে থাকা প্রিয়তমা স্ত্রীকে সারপাইজ দিতে ফের দুবাই চলে আসেন শনিবার। স্থানীয় সময় বিকেল সাড়ে পাঁচটায় তিনি এয়ারপোর্ট থেকে যান জুমেইরা এমিরেটস টাওয়ার হোটেলে।

 

শ্রীদেবী তখন শুয়েছিলেন। বনি তাকে ঘুম থেকে ডেকে তোলেন। মিনিট পনের কথা বলেন। বনির উদ্দেশ্য ছিল স্ত্রীকে নিয়ে স্পেশাল ডিনার সারবেন। আদপে তার দুবাই ফিরে আসার অন্যতম কারণও ছিল এটা। স্বামী-স্ত্রী মিলে মিনিট পনের কথা বলেন। এরপর শ্রীদেবী বাইরে বেরোনোর জন্য প্রস্তুত হতে বাথরুমে যান। বনি বসে থাকেন ঘরে।

 

তবে বেশকিছু সময় পার হয়ে গেলেও শ্রীদেবী বের হয়ে আসছিলেন না। এমনকি সাড়াশব্দও ছিল না কোনো। মিনিট পনের সময় পার হওয়ার পর বনি বাথরুমের দরোজায় নক করেন। কিন্তু ভেতর থেকে কোনো সাড়া নেই। এরপর তিনি সজোরে ধাক্কা দিয়ে দরোজা খুলে ভেতরে ঢুকে দেখেন স্ত্রী পড়ে আছেন পানিভির্তি বাথটাবে। সংজ্ঞাহীন।

 

পত্রিকার রিপোর্ট মোতাবেক, বনি সংজ্ঞা ফেরানোর প্রাণান্তকর চেষ্টা করেন। ব্যর্থ হয়ে এবার তিনি এক ঘনিষ্ঠ বন্ধুকে ফোন দেন। এরপর পুলিশে ফোন দেওয়া হয়, তখন দুবাই সময় রাত ৯টা।

 

খবর পেয়ে পুলিশ আসে, সঙ্গে আসে চিকিৎসক দলও। পরীক্ষা করে চিকিৎসকরা জানান, সব চিকিৎসার বাইরে চলে গেছেন শ্রীময়ী শ্রীদেবী।

 

এরপর হোটেল থেকে মরদেহ নিয়ে যাওয়া হয় দুবাইর রশিদ হাসপাতালে। সেখান থেকে জেনারেল ডিপার্টমেন্ট অব ফরেনসিক মেডিসিনের মর্গে, ময়না তদন্তের জন্য।

 

প্রসঙ্গত, গত সপ্তাহেই আরব আমিরাতের রাস আল খাইমা রাজ্যে যান বনি কাপুর পরিবার। বনির ভাতিজা মোহিত মারওয়ার বিয়ের অনুষ্ঠানে তারা গিয়েছিলেন সেখানে, সঙ্গে ছিল ছোট মেয়ে খুশি। বড় মেয়ে জাহ্নবি দেশেই ছিল শ্যুটিং থাকায়।

সবশেষ তথ্যে জানা গেছে, গতকাল (রবিবার) শ্রীদেবীর ময়না তদন্ত সম্পন্ন হয়েছে।

 

আজ সোমবার দুবাই কর্তৃপক্ষ ফরেনসিক রিপোর্ট হস্তান্তর করবে ভারতীয় কর্তৃপক্ষের কাছে। এরপর শ্রীদেবীর মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে মুহাইসনায়- সেখানে গোসল দেওয়ার পর শেষকৃত্যের জন্য প্রস্তুত করা হবে।

 

একইদিন দুবাইর ভারতীয় কনস্যুলেট তার পাসপোর্ট ক্যানসেল করবে। পরে অন্যান্য আনুষ্ঠানিকতা শেষে দুবাইর স্থানীয় সময় দুপুর ১টা থেকে ২টার মধ্যে প্রাইভেট প্লেনে করে মরদেহ মুম্বাইর পথে রওনা হবে। জানা গেছে, শ্রীদেবীর মরদেহ ভারতে নেওয়ার জন্য ধনকুবের অনিল ধীরুভাই আম্বানি একটি প্রাইভেট জেট পাঠিয়েছেন দুবাইতে।

এই বিভাগের আরো খবর :

তথ্যমন্ত্রীর প্রত্যাশা গণমাধ্যমের কাছে
বিএনপি প্রার্থী মিল্লাতের প্রার্থিতা বাতিল হাইকোর্টে
গরীবদের জন্য এই দোকানে পোশাক-জুতো বিকোচ্ছে মাত্র ১০ টাকায়
আমার বিয়ের দিন থেকেই কোরবানি দিচ্ছি : অপু বিশ্বাস
পাকিস্তান ৭৪ রানেই অলআউট!
বেনাপোলে “দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিনের” সংবাদিক ও বেনাপোল প্রেস ক্লাবের সাবেক সাধারন সম্পাদক বকুল মাহবু...
আমাকে মায়ের গর্ভেই মেরে ফেলতে চেয়েছিলেন আমার বাবা!
স্ত্রী ঘুমিয়ে পড়লেই গোপন রাস্তা দিয়ে চলে যান স্বামী
টাঙ্গাইলে প্রতিপক্ষের হামলায় একই পরিবারের নারীসহ ৫জন আহত
ভারসাম্য বজায় রাখতে ফিলিস্তিন সফরে যাচ্ছেন মোদি!
গরিব মানুষের জন্য সরকারের দেওয়া কম্বল, আমাদেরটা কই?
গোপালগঞ্জেও শিক্ষার্থীদের অবরোধ
এত তর্ক করছেন কেন? খালেদা জিয়ার আইনজীবীকে বিচারক
এখনও মাধুরী দীক্ষিতকে বিয়ে করতে চান সঞ্জয় দত্ত?
চিরিরবন্দরে পানিতে ডুবে একই পরিবারের দুই শিশুর মৃত্যু