প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :   আমি দ্বাদশ শ্রেণীতে পড়ি। আমি আমার এক কাজিনকে ভালোবাসি। ভয়ে ২ বছর ধরে তাকে এ কথা বলতে পারিনি। অনেকদিন যাবত তার সাথে আমি অপরিচিত সেজে কথা বলেছি মোবাইলে, কিন্তু তখনও সে আমার সাথে ঠিকভাবে কথা বলত না। কিন্তু যখন আমার সত্য পরিচয় জানলো সে জানতে চাইলো আমি কেন এসব করলাম। তাকে আমি জানালাম যে ২ বছর ধরে তাকে আমি পছন্দ করি। সে বুঝতে পারলো।

 

 

 

আস্তে আস্তে আমাদের কথা বাড়লো সেখান থেকে সম্পর্কের শুরু হল। সম্পর্কের ৬ মাস পর ঠিক করলাম আমরা ঘনিষ্ঠ হব। ৩/৪ বার শারীরিক সম্পর্ক হলো। আস্তে আস্তে ও পালটে যেতে লাগলো। মূলত আমি ঢাকা থেকে সপরিবারে সাভার আসার পরই পরিবর্তনটা হল। না কল দেয়, না একটা ম্যাসেজ। আমাকে এড়িয়ে চলতে শুরু করলো।

 

 

 

 

২ মাস পর সে বলল, সে জানালো সে আমার সম্পর্কটা চালিয়ে যেতে চাচ্ছেনা। আমি জানিনা ও আমার সাথে কেন এমন করলো? আমার খুব হতাশ মনে হয় নিজেকে। তাছাড়া আমার আম্মু, আপু আরো কিছু আত্মীয় আমাদের সম্পর্কের কথা জানে, তাদেরই বা কি বলবো? মরে যেতে ইচ্ছা করে। আমার বিয়ে হলে তো স্বামী বুঝে ফেলবে সবকিছু। তখন কি হবে? আমি তো ও কে বিশ্বাস করেছিলাম তাহলে কেন এমন করলো? আমি প্রতিদিন তিলতিল করে শেষ হয়ে যাচ্ছি। আমি মরে গেলেই বোধহয় এর সমাধান হবে।

 

 

 

 

পরামর্শ :

ঠিক এই কারণেই বিয়ের আগে শারীরিক ঘনিষ্ঠতাকে আমি পরিহার করতে বলি আপু। কেননা, মানসিক পরিপক্কতা আসার আগেই শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়ে যাওয়া, কিংবা প্রেম করলাম বলেই শারীরিক সম্পর্ক করতে হবে এমন চিন্তাভাবনা আসলে কখনোই মঙ্গল বয়ে আনে না। যদি ভালোবাসা থাকেই, তাহলে একটুখানি অপেক্ষা করতে তো কোন অসুবিধা হবার কথা নয়।

 

 

 

 

যাই হোক, যেটা হয়ে গিয়েছে সেটা হয়েছেই। আমার যতদূর মনে হচ্ছে ছেলেটা কখনোই তোমার ব্যাপারে খুব একটা সিরিয়াস ছিল। তোমার প্রবল আগ্রহের কারণেই সম্পর্কটা হয়েছিল ও টিকে ছিল। আরও বড় একটা ভুল হয়ে গেছে সম্পর্কটা সবাইকে জানিয়ে। যে চলে যেতে চায় তাঁকে ধরে রাখা যায় না। তাই এক্ষেত্রে তোমার একমাত্র করণীয় জীবনের পথে সামনে যাওয়া।

 

 

 

 

তোমার বয়স খুবই কম, মাত্র দ্বাদশ শ্রেণীতে পড়। বিয়ের পর স্বামীকে কী বলবে, এসব অপ্রয়োজনীয় কথা ভেবে এখনোই মাথা খারাপ করার কোন কারণ দেখছি না। লেখাপড়া শেষ করো, নিজের পায়ে দাঁড়াও। পরিবারের কাউকেও এখন কিছু বলার প্রয়োজন দেখছি না। সময়কে যেতে দাও, যা বোঝার তারাই বুঝে নেবেন।

 

 

 

 

তুমি এখনো অনেক ছোট আপু, জীবনের সব সৌন্দর্য তোমার জন্য অপেক্ষা করছে। একদিন জীবনটা অনেক সুন্দর হয়ে উঠবে। ততদিন পর্যন্ত এলোমেলো সম্পর্কে জড়ানো থেকে নিজেকে একটু বাঁচিয়ে রাখো।

এই বিভাগের আরো খবর :

প্রেমিক আমার সন্তানকে কিছুতেই মেনে নিচ্ছে না…
কলার তন্তু দিয়ে তৈরি হচ্ছে জিন্স!
জীবনে শত শত কোটি টাকার মালিক হতে চাইলে এই চার ব্যবসার কোন বিকল্প নেই!
যে লক্ষণ দেখে বুঝবেন আপনারও স্ট্রোক হতে পারে
ভারত সরকার জেএমবি-কে নিষিদ্ধ করল
আট বছর ধরে মসজিদের ওযুখানায় বসে রাত কাটাচ্ছেন এই তরুণী, কারণ জানলে অবাক হবেন
বৃষ্টি হলেই বাদ্যযন্ত্রের মতো বেজে ওঠে বাড়ি, ওঠে সুরেলা বাজনা!
হয়রানি থেকে বাঁচতে ধর্ষণের মামলা তুলে নিচ্ছেন তিনি!
রোনালদোকে মিস করছি : মার্সেলো
জুতা নিক্ষেপ, জানাজা পড়া হলো না এমপির
জামিন পেলেন প্রশ্নপত্র ফাঁসের হোতা রাকিবুল
আট বছর পরে বার্সা ছাড়ছেন মাসচেরানো
ইসির কাছে জাতি কৃতজ্ঞ: এইচটি ইমাম
পরিবারের জন্য ব্যয় করলে কি সওয়াব হবে?
সিরিয়ার বিভিন্ন স্থানে যুক্তরাষ্ট্র ও মিত্রদের একযোগে হামলা শুরু