প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :    কজন পূর্ণাঙ্গ নারী এবং একজন মেয়ের নিজস্ব পৃথিবী সম্পূর্ণ আলাদা ধরণের। একজন নারী যেভাবে পৃথিবী দেখেন একজন মেয়ে সেভাবে দেখতে পারেন না। কারণ একজন নারী বিদ্যা, বুদ্ধি এবং অভিজ্ঞতার দিক থেকে একজন মেয়ের থেকে অনেক বেশি সমৃদ্ধ থাকেন।

 

 

 

একজন পূর্ণাঙ্গ নারী জানেন তার সীমা কতোটুকু, তিনি জানেন তার প্রেমিক পুরুষটি সবজান্তা নন বা এটিএম মেশিনও নন। এইসকল জিনিস একজন মেয়ে কখনো বুঝতে পারেন না, কারণ তাদের পৃথিবী সম্পূর্ণ আলাদা থাকে।

এবার পুরুষেরা নিজেকে প্রশ্ন করুন তো আপনার প্রেমিকা কেমন? তিনি কি একজন পূর্ণাঙ্গ নারী নাকি এখনো ছোট্ট মেয়েটিই রয়েছেন? চলুন আপনার দ্বিধা কিছুটা পরিষ্কার করে দেয়া যাক।

 

 

 

১) আপনার প্রেমিকা কি নিজের পোশাক নিয়ে অনেক বেশি চিন্তিত থাকেন? তাহলে জেনে নিন যে মেয়েরা নিজের পোশাক নিয়ে অনেক বেশি চিন্তিত থাকেন এবং মনে করেন পোশাকের কারণেই তাকে সুন্দর বা অসুন্দর দেখাবে তারা এখনো ম্যাচিউরড হয়ে উঠেননি। কারণ একজন পূর্ণাঙ্গ নারী জানেন তাকে অবশ্যই সুন্দর দেখাবে তিনি যাই পড়ুন না কেন, আর সেকারণেই তিনি পোশাক আশাক নিয়ে খুব চিন্তিত থাকেন না।

 

 

 

 

২) যদি আপনার প্রেমিকাটি সরাসরি তার আবেগ এবং অনুভূতি আপনার কাছে প্রকাশ করেন তাহলে তিনি একজন পূর্ণাঙ্গ নারী। কারণ যারা এখনো নারী নন, মেয়ে রয়েছেন তারা নিজের মনের ভাব প্রকাশ করতে পারেন না এবং সবসময় আশা করেন তার প্রেমিক পুরুষটি তা আপানাআপনি বুঝে নেবেন।

 

 

 

 

৩) আপনার প্রেমিকা যদি একজন পূর্ণাঙ্গ নারী হয়ে থাকেন তাহলে তিনি চাইবেন না আপনাদের রেস্টুরেন্টের বিল সব সময় আপনিই দিন। যদি আপনি প্রেমিকার বিল দেয়া পছন্দ না করেন তাহলে আপনার প্রেমিকা আপনাকে প্রায়ই গিফট দিয়ে এই বিলের প্রতিদান দিয়ে ফেলবেন। কারণ নারীরা চান তার প্রেমিক পুরুষটি তাকে নিজের সমকক্ষ ভাবুন।

 

 

 

 

৪) একজন নারী সব সময়েই মাথায় রাখেন তার সীমা কতোখানি। তিনি কখনোই তার সীমা লঙ্ঘন করেন না। কিন্তু যিনি এখনো বোঝেনই না যে তার সীমা কতোটুকু তিনি কখনোই একজন পূর্ণাঙ্গ নারী নন।

 

 

 

 

৫) আপনার প্রেমিকা কি সব সময়েই ফেসবুক বা সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে আপনাদের নিয়ে আপডেট দিতে খুব বেশি পছন্দ করেন? তাহলে জেনে রাখুন তিনি এখনো মেয়ে, একজন পূর্ণাঙ্গ নারী নন। কারণ একজন নারীর অনেক ধরণের বিষয় ভাবার থাকে এই ফেসবুক ছাড়াও।

 

 

 

 

৬) যদি আপনার প্রেমিকা এখনো ম্যাচিউরড না হয়ে থাকেন তাহলে তিনি বসে বসে হিন্দি বা বাংলা সিরিয়াল দেখবেন টিভিতে। কিন্তু একজন পূর্ণাঙ্গ নারীর কাছে পাবেন নিত্য নতুন পৃথিবীর খবরাখবর। তার কাছে টিভি দেখার চাইতে বই পড়া অনেক ভালো অবসর যাপনের উপকরণ।

 

 

 

 

৭) পরনিন্দা পরচর্চা কম বেশি সব মেয়েরাই করে থাকেন, গসিপ করা মেয়েদের প্রতিদিনের কাজ। কিন্তু মনে রাখবেন এগুলো মেয়েদের কাজ, নারীদের নয়। একজন পূর্ণাঙ্গ নারী জানেন এই ধরণের গালগল্প কিভাবে থামিয়ে দিতে হয়।

 

 

 

 

৮) মেয়েরা সকলের সামনে সালাদ খেয়ে প্রমান করেন তিনি স্বাস্থ্য সচেতন যদিও ঠিকই বাড়ি গিয়ে অস্বাস্থ্যকর খাবার নিয়েই বসে পড়েন। কিন্তু অপরপক্ষে নারীরা স্বাস্থ্যকর খাবার খান মানুষকে দেখানোর জন্য নয়, তিনি তার শরীরকে ভালবাসেন এবং সুস্থ থাকতে চান সেকারণে।

 

 

 

 

৯) মেয়েরা নিজেরা যা বোঝেন তা নিয়েই লেগে থাকেন, অন্য মানুষটির মতামত যে সঠিক হতে পারে তা বুঝতে চান না। কিন্তু একজন নারী কখনোই তা করেন না, তিনি অপর মানুষটির কথা শোনেন এবং বোঝার চেষ্টা করেন কোনটি সঠিক।

 

 

 

 

১০) মেয়েরা সবসময় নির্ভর করার মতো একজনকে খুঁজে বেড়ান, কারণ তারা পরনির্ভরশীল থাকেন। কিন্তু একজন পূর্ণাঙ্গ নারী কখনোই নির্ভরশীল থাকার জন্য কাউকে খোঁজেন না, কারণ তারা জানেন তারা নিজেরাই নিজেদের জন্য যথেষ্ট।

এবার মিলিয়ে দেখুন তো আপনার প্রেমিকার মধ্যে কোন কোন জিনিসগুলো রয়েছে। তিনি কি একজন পূর্ণাঙ্গ নারী, নাকি এখনো ছোট্ট মেয়েটিই হয়ে রয়েছেন।