প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :   দাঁতে কি সামান্য ফাঁকা আছে- আপনার সামনের দুই দাঁতের মাঝে ফাঁকা, অনেক সময় সবার সামনে কথা বলতে বা হাসতে গিয়ে আপনি নিজেই হাসির পাত্র হয়ে যায়! এতে লজ্জায় পড়তে হয়, খুব রাগ হয় নিজের ওপর।কিন্তু তাই বলে তো আর হাসি থামিয়ে রাখা যাবে না, এখন উপায়! আপনি জানেন কি? দাঁতের ওপর ভাগ্য অনেকাংশে নির্ভর করে। এমনকি কার স্বভাব কেমন হবে, তাও অনেকাংশে দাঁতের গঠন বিশ্লেষণ করে বলে দেয়া সম্ভব।সম্প্রতি প্রাচীন নথি ঘেঁটে এমনটাই দাবি করেছেন বিশেষজ্ঞরা। কী কথাগুলো বিশ্বাস হচ্ছে না তো!তাহলে আসুন জেনে নেয়া যাক গবেষকরা একাধিক প্রাচীন নথি ঘেঁটে দাঁতের গঠন বিশ্লেষণ করে আর কী কী তথ্য পেয়েছেন?

 

 

 

 

নিম্নে তা আলোচনা করা হলো-যাদের দুই দাঁতের মাঝে ফাঁকা থাকে, তারা খুব সাহসী ও আত্মবিশ্বাসী হয়ে থাকেন।যাদের সামনের পাটির দাঁতে ফাঁকা থাকে, তারা কর্মজীবনে খুব সফল হন। শুধু তাই নয়, জীবনে এত বড় কাজ করেন যে, বাকিরা একটা সময়ে গিয়ে তাদের আইডল হিসেবে মানতে শুরু করেন।তারা যদি ঠিক করে ফেলেন কাজটা করবেন, করেই ছাড়েন। এক কথায় জীবনে সফল হতে গেলে যেই গুণগুলো থাকার দরকার তা সবই খুঁজে পাওয়া যায় তাদের মধ্যে। বিপজ্জনক কাজেও পিছপা হন না তারা।তারা সব কাজ গুছিয়ে করতে পছন্দ করেন। সফলতার চিন্তা না করেই যে কোনো কাজে নিজেদের সেরাটা দেয়ার চেষ্টা করেন।এ ধরণের দাঁতের গঠনের যারা, তারা চিন্তাভাবনা না করেই হুট করে সিদ্ধান্ত নেন। তাই অনেক সময় নানা অসুবিধায় জড়িয়ে পড়েন তারা।যাদের দাঁতের গঠন এমন , তারা সাধারণত খুব বুদ্ধিমান এবং ক্রিয়েটিভ হন। শুধু তাই নয়, এরা যে কোনো কাজ খুব উৎসাহের সঙ্গে করে থাকেন। যে কারণে সফলতা এদের প্রতিদিনের সঙ্গী হয়।

 

 

 

 

এমন মানুষেরা কথা বলতে খুব ভালবাসেন। তাই তো বন্ধু বা চেনা-জানা লোকেদের মাঝে থাকতে এরা খুব পছন্দ করেন।কীভাবে টাকা খরচ করতে হয় তারা খুব ভালভাবেই জানেন। তাই তো জীবনে কখনও অর্থনৈতিক সংকটে পড়তে হয় না এমন মানুষদের।এ ধরণের মানুষ খুব পেটুক হয়ে থাকেন মানে খেতে ভালবাসেন। শুধু চেনা খাবার নয়, এমন মানুষেরা যে কোনো ধরনের খাবার পেলেই খুশি হয়ে যান।