প্রথমবার্তা ডেস্ক রিপোর্ট :            গলাকাটা ৪ যুবকের পরিচয়- বগুড়ার শিবগঞ্জের পল্লীতে চার ব্যক্তিকে জবাই করে হত্য করেছে দূর্বৃত্তরা। সোমবার দুপুরে বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার আটমূল ইউনিয়নের আলিয়ারহাটের উত্তরে ও গাঙ্গনই নদীর পশ্চিমে ডাবইর নামক স্থানে ধানক্ষেতের মধ্যে থেকে চারটি পুরুষের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

 

 

 

 

 

উদ্ধারের পর লাশ চারটি বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। নিহত চারজনের মধ্যে তিন জনের পরিচয় পাওয়া গেছে একজনের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

 

 

 

 

পরিচয় উদ্ধার হওয়া তিনজন হলেন বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার আটমুল ইউনিয়নের কাঠগড়া চকপাড়ার আছির উদ্দিনের পুত্র শাবরুল ইসলাম শাবুল (৩৫) ও একই এলাকার জহুরুল ইসলামের পুত্র মোঃ জাকারিয়া (৩২),আজহার উদ্দিনের পুত্র হেলাল (৩২) ।

 

 

 

 

 

সোমবার দুপরে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ লাশ উদ্ধারের সময় শাবুলের পরনে ছিল কিছুটা খয়েরি রঙের ফুলহাতা শার্ট ও হাতে রশিবাঁধা ছিল। পরনে কিছু ছিল না।

 

 

 

 

শাবুল তার বাড়ি থেকে প্রায় দুই কিলোমিটার দূরে ইউনিয়ন পরিষদের পাশে ভাইয়ের পুকুর নামক স্থানে পারিবারিকভাবে দেয়া পান দোকানে মাঝে মধ্যে বসতো। এই দোকান থেকে প্রায় দেড় কিলোমিটার দূরে ধানক্ষেতের মধ্যে লাশ পরে ছিল।

 

 

 

 

জাকারিয়ার পরা ছিল টি শার্ট আর চেক ট্রাউজার। তার লাশের পাশে একটি কালো শপিংব্যাগ ছিল। বাকি দুই অজ্ঞাতজনের মধ্যে একজনের পরা ছিল কালো রঙের গোল গলা গেঞ্জি, তাতে সাদা রঙের ছাপ ছিল।

 

 

 

 

পরনে ছিল প্যান্ট, বয়স আনুমানিক ৩০ বছর। অপরজনের হাঁটু পর্যন্ত কিছুুটা মাটি কালারের প্যান্ট জড়ানো ছিল। পরনে হালকা গোলাপি কালার শার্ট। হাত বাঁধা ছিল। বয়স আনুমানিক ৩৪ বছর।

 

 

 

 

সরেজমিনে বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার আটমুল ইউনিয়নের বাসিন্দারা জানান, সোমবার সকাল ৯টার সময় স্থানীয় এক ব্যক্তি গরুর ঘাসকাটার জন্য ওই ধানক্ষেতের কাছে যায়। ঘাস কাটার এক সময় লাশ দেখতে পেয়ে চিৎকার করে উঠে।

 

 

 

 

তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে লাশগুলো দেখতে পায়। পরে শিবগঞ্জ থানা পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে জেলা পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুঞা, ডিবি পুলিশ, শিবগঞ্জ থানা পুলিশ সদস্যরা, পিবিআইসহ অন্যান্য গোয়েন্দা সংস্থা ঘটনাস্থলে ছুটে যায়।

 

 

 

 

 

লাশ চারটি একই সীমানায় লাগোয়া থাকা তিনটি ধানক্ষেত থেকে উদ্ধার হয়। চারটি লাশেরই গলাকাটা ও হাত বাঁধা ছিল। বগুড়া পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুঞা বিপিএম জানান, ঘটনাটির তদন্ত কাজ চলছে।

 

 

 

 

 

হত্যাকান্ডের সাথে যারাই জড়িত থাকুক না কেন যত দ্রুত সম্ভব তাদের গ্রেফতার করা হবে। এঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জন্য এলাকাবাসীসহ সকলের সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

এই বিভাগের আরো খবর :

রাতারাতি আরেকটা সাকিব পাওয়া সম্ভব নয়
নেইমারের বিশ্বকাপ নিশ্চিত
শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে রেকর্ড রানে জিতল ভারত
ছুটি ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়তে পারে
কোহলি-আনুশকার ছবি থেকে কোহলিকেই বাদ দিলেন যুবরাজ!
খালেদা জিয়ার সাজার পরেও কেন হরতাল-অবরোধ দেয়নি বিএনপি?
বিয়ে করলেই নববধূকে ১০ গ্রাম সোনা উপহার দেবে সরকার! কেন জানেন?
ডোরাকাটা হলুদ বাঘিনীর গর্ভে সাদা শাবকের জন্ম
দুদকের ৩৩ মামলার ভুল আসামি জাহালমকে মুক্তির নির্দেশ
অবশেষে ছেলের বাসায় ফিরলেন সেই শিক্ষক বাবা
৩য় বর্ষ ডিগ্রি পাস ও সার্টিফিকেট পরীক্ষার সময় পরিবর্তন
এবার বুবলীকে নিয়ে আইনি জটিলতায় শাকিব!
রানের পাহাড় গড়ল ঢাকা ডায়নামাইটস
যমজ সন্তানের মা হলেন সানি লিওন
আপত্তিকর অবস্থায় হাতেনাতে আটক ডাক্তার, এরপর…